চিকিৎসককে পিস্তল ঠেকিয়ে চাঁদা দাবি: ভিডিও ভাইরাল, অভিযুক্ত গ্রেফতার

 চিকিৎসককে পিস্তল ঠেকিয়ে চাঁদা দাবি: ভিডিও ভাইরাল, অভিযুক্ত গ্রেফতার

কুমিল্লার তিতাসে এক পল্লী চিকিৎসকের চেম্বারে ঢুকে প্রকাশ্যে পিস্তল ঠেকিয়ে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনার একটি সিসিটিভি ফুটেজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

রবিবার উপজেলার মজিদপুর ইউনিয়নের শান্তির বাজারে পল্লী চিকিৎসক শামসুল হুদার চেম্বারে এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে, অভিযুক্ত সাগরকে রবিবার রাতে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে বর্তমানে কুমিল্লায় নেওয়া হচ্ছে।

তিতাস থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শুদিন চন্দ্র দাস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, “রবিবার রাতে ভাইরাল ভিডিওটি আমাদের নজরে আসে। এরপর আমরা অভিযানে নামি। অভিযুক্ত সাগরকে এরই মধ্যে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে কুমিল্লা আনা হচ্ছে।”

তিনি আরও বলেন, “অস্ত্রধারী সাগরের বিরুদ্ধে অস্ত্র, চাঁদাবাজি, মাদক ও ছিনতাইসহ মোট ৮টি মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।”

জানা গেছে, অভিযুক্ত সাগর তিতাস উপজেলার শাহপুর গ্রামের মৃত হাবুল মিয়ার ছেলে ও মজিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমের চাচাতো ভাই।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী সামসুল হুদা বলেন, ‘শনিবার  রাতে আমার বাসায় ডাকাতির উদ্দেশ্যে হামলা চালানো হয়। প্রতিবেশীরা সজাগ হলে ডাকাতদল পালিয়ে যায়। পরে রবিবার সকালে বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যান ফারুক মিয়া সরকারসহ আশপাশের লোকজনকে জানানো হলে সাগর ক্ষিপ্ত হয়ে বিকালে আমার চেম্বারে ডুকে প্রথমে আমাকে হুমকি দেয়। পরে পিস্তল বের করে আমাকে হত্যার হুমকি দিয়ে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। এ সময় আমি নগদ ও বিকাশের মাধ্যমে ৩৯ হাজার টাকা প্রদান করি। এক পর্যায়ে তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে এ দুই লাখ টাকা জমা করার জন্য বলা হয়। অন্যথায় প্রাণে মেরে ফেলারও হুমকি দেয় সাগর।

এ ঘটনার পর অভিযুক্ত সাগর ভুক্তভোগী সামসুল হুদাকে নানা রকমের ভয়-ভীতি দেখিয়েছেন। তার ভয়ে সামসুল হুদা বাইরে বের হচ্ছেন না। তিনি বাড়ি থেকে ফেসুবক লাইভে সবার সহযোগিতা চেয়েছেন।

এদিকে পিস্তল ঠেকিয়ে চাঁদা দাবির ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। স্থানীয়দের মধ্যে এ নিয়ে চলছে নানান রকমের আলোচনা-সমালোচনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *