জাহাঙ্গীরের পদে কে পাচ্ছেন দায়িত্ব

 জাহাঙ্গীরের পদে কে পাচ্ছেন দায়িত্ব

গাজীপুর মহনগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম দল থেকে বহিষ্কৃত হওয়ায় দলীয় সাধারণ সম্পাদকের পদ নিয়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা। এ পদে কে আসতে পারেন তা নিয়ে নেতা-কর্মীদের মধ্যে আলোচনার শেষ নেই। কেউ বলছেন আতাউল্লাহ মন্ডল, আবার কেউ বলছেন মতিউর রহমান মতি গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হতে পারেন। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সাধারণ সম্পাদক পদে কেউ বহিষ্কার কিংবা পদত্যাগ করলে এক নম্বর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। সে হিসেবে এক নম্বর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আতাউল্লাহ মন্ডলই দায়িত্ব পাওয়ার কথা। এ বিষয়ে দু-এক দিনের মধ্যে সিদ্ধান্ত হতে পারে। আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা আতাউল্লাহ মন্ডল বলেছেন, আমাকে দায়িত্ব দেওয়া হলে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের নিয়ে দলকে সু-সংগঠিত করবেন।

প্যানেল মেয়রের জন্য দৌড়ঝাঁপ: 
গাজীপুর মহনগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম দলীয় পদ হারানোর পর হারাতে পারেন মেয়র পদও। এমন ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা থাকায় অনেক কাউন্সিলর প্যানেল মেয়র হওয়ার জন্য দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন। লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন, কেন্দ্রীয় পর্যায়েও। মেয়র না থাকলে প্যানেল মেয়ররাই ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন সেই আশায়।মেয়র ও কাউন্সিলর সম্পর্কিত বিধানে রয়েছে, ‘সিটি করপোরেশন গঠিত হওয়ার পর অনুষ্ঠিত প্রথম সভার এক মাসের মধ্যে কাউন্সিলররা অগ্রাধিকারক্রমে তাহাদের নিজেদের মধ্য ইহতে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি মেয়রের প্যানেল নির্বাচন করবেন। তবে শর্ত থাকে যে, নির্বাচিত তিনজনের মেয়র প্যানেলের মধ্যে একজন অবশ্যই সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর হইতে হইবে।’ উপ-দফা(১) অনুযায়ী মেয়রের প্যানেল নির্বাচিত না হইলে সরকার প্যানেল মেয়র মনোনীত করিবেন। গাজীপুরের প্যানেল মেয়র পদটি শূন্য থাকায় সরকার প্যানেল মেয়র মনোনীত করবে বলে জানা গেছে। গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নানা গুঞ্জন চলছে। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও খবর ছড়িয়েছে। গুজব নিয়ে মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমি আমার বাস ভবনেই অবস্থান করছি এবং সিটি করপোরেশনের কাজ করছি।

রাজবাড়ীতে মামলা: 
গাজীপুর সিটি মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী আদালতে মামলা হয়েছে। গতকাল দুপুরে মানবিক বাংলাদেশ সোসাইটির রাজবাড়ী পৌর শাখার সভাপতি শশী আক্তার মামলাটি করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে ১৩ ফেব্রুয়ারির মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশনা দিয়েছে।

বাদী তার আরজিতে উল্লেখ করেন ‘আসামি আওয়ামী লীগের মুখোশধারী ও সাবেক নেতা। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়েছেন। যার মাধ্যমে তিনি বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে প্রপাগান্ডা চালিয়েছেন এবং ইতিহাস বিকৃতি করেছেন। এ ছাড়া মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়েও বিভ্রান্তি ছাড়িয়েছেন। এসব বিষয় উল্লেখ করে  ৫০৪ ও ৫০৫ ধারায় মামলার আবেদন করেন। মামলা নম্বর সিআর ৭৭৬/২০২১।

শশী আক্তারের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মেহেদী হাসান বলেন, গাজীপুরের মেয়দের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন করেছিলাম। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশনা দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *