বিধিনিষেধ শিথিলের প্রথম দিনেই রাজধানীতে তীব্র যানজট

 বিধিনিষেধ শিথিলের প্রথম দিনেই রাজধানীতে তীব্র যানজট

করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতির খুব একটা উন্নতি নেই। এরমধ্যেই বিধিনিষেধ (লকডাউন) শিথিল করা হয়েছে। ধারণক্ষমতার শতভাগ যাত্রী নিয়ে ১৯ দিন পর আবারও সড়কে চলতে শুরু করেছে গণপরিবহন। বুধবার (১১ আগস্ট) বিধিনিষেধ শিথিলের প্রথম দিনেই রাজধানীতে সৃষ্টি হয়েছে তীব্র যানজট। এই দিন বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রাস্তায় বাড়ছে যানবাহন ও মানুষের যাতায়াত।

বুধবার সকাল ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত রাজধানীর পলাশী, মিরপুর, কাজীপাড়া, শেওড়াপাড়া, তালতলা, আগারগাঁও, বিজয় সরণি, ফার্মগেট ও কারওয়ান বাজার এলাকায় যানজট দেখা যায়। লকডাউন শিথিল হওয়ায় ভোর থেকেই রাস্তাঘাটে মানুষের ভিড় বাড়তে থাকে। কাকডাকা ভোর থেকেই ঘোরে গণপরিবহনের চাকা। শুধু গণপরিবহনই নয় আজ থেকে ছোটবড় দোকানপাট ও শপিংমল মার্কেট খুলে দেয়ার কারণে হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় নামেন।

সরেজমিন রাজধানীর বিভিন্ন রাস্তাঘাট ঘুরে দেখা গেছে, লকডাউন শিথিলের প্রথম দিনের সকালেই রাজধানী প্রায় চিরচেনা রূপে ফিরে এসেছে। বিভিন্ন রাস্তাঘাটে রিকশা, সাইকেল, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, মোটরসাইকেল, ভ্যান গাড়ি, কাভার্ডভ্যান, ছোট-বড় বাস, জিপগাড়ি ও মাইক্রোবাসসহ অসংখ্য যানবাহন চলাচল করছে।

ফার্মগেট এলাকায় দায়িত্বরত ট্রাফিক সার্জেন্ট মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, ১৯ দিন পর লকডাউন শিথিল হওয়ায় রাজধানীতে সব ধরনের যানবাহন বের হতে শুরু করেছে। তাই রাস্তায় জ্যাম শুরু হয়েছে। সকাল ৭টার দিকে রাস্তায় যানবাহন কম ছিল। সকাল ৯টার পর থেকেই যানবাহন বাড়তে শুরু করে।

ট্রাফিক সার্জেন্ট আরো বলেন, বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রাস্তায় বাড়ছে যানবাহনের সংখ্যা। মেট্রোরেলের কাজ চলায় রাস্তা অনেক জায়গায় সংকীর্ণ হয়ে গেছে। মূলত এই কারণেই সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। লকডাউনের দিনগুলোতে রাস্তায় যানবাহনের চাপ খুবই কম ছিল। কিন্তু আজকে যানবাহনের চাপ অনেক বেশি।

রাজধানীর পলাশীতে কর্তব্যরত একজন ট্রাফিক সার্জেন্ট জানান, লকডাউনকালে দায়িত্ব পালনে বলতে গেলে কোনো কষ্টই করতে হয়নি। কিন্তু আজ সকাল থেকেই যানবাহনের ভিড় সামাল দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *