বিশ্বের প্রথম ‘উড়ন্ত জাদুঘর’ চালু করতে যাচ্ছে সৌদি

 বিশ্বের প্রথম ‘উড়ন্ত জাদুঘর’ চালু করতে যাচ্ছে সৌদি

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবে বিশ্বের প্রথম ‘উড়ন্ত জাদুঘর’ চালু হতে যাচ্ছে। মঙ্গলবার (০২ নভেম্বর) আরব নিউজ এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

আগামী বৃহস্পতিবার (০৪ নভেম্বর) বিশ্বের প্রথম এই উড়ন্ত যাদুঘরটি চালু করবে মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটি। উড়োজাহাজে চড়ে এ জাদুঘরের প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন পরিদর্শন করতে হবে দর্শনার্থীরা।

খবরে বলা হয়, রাজধানী রিয়াদ ও প্রাচীন শহর আলউলার মধ্যে উড়োজাহাজে চড়ে দর্শনার্থীরা প্রত্নতাত্ত্বিক প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনগুলো দেখবেন।

জাদুঘরটি রয়্যাল কমিশন ফর আলউলা ও সৌদির রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী সৌদিয়া এয়ারলাইনসের মধ্যে একটি সহযোগীতামূলক প্রকল্প, প্রত্নতাত্ত্বিক খননের মাধ্যমে আলউলায় আবিষ্কৃত

প্রত্নতাত্ত্বিক খননের মাধ্যমে আলউলায় আবিষ্কৃত নিদর্শনগুলোর একটি প্রতিরূপের সংগ্রহ প্রদর্শন করবে জাদুঘরটি।

সৌদি প্রেস এজেন্সি জানিয়েছে, জাদুঘর পরিদর্শনের জন্য উড়োজাহাজে ওঠা দর্শনার্থীরা ‘আর্কিটেক্টস অব অ্যানসিয়েন্ট অ্যারাবিয়া’ নামের ডিসকভারি চ্যানেলের ডকুমেন্টারিও দেখতে পারবেন, যা এই বছর প্রকাশিত হয়েছে।

কমিশনের প্রত্নতত্ত্ব এবং সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য গবেষণার পরিচালক রেবেকা ফুট বলেন, ভ্রমণের সময় দর্শনার্থীদের জন্য ডকুমেন্টারি একটি ভূমিকা রাখবে এবং যাদুঘরে বৈশিষ্ট্যযুক্ত শিল্পকর্ম সম্পর্কে একটি ব্যাখ্যা দেবে।

তিনি বলেন, আলউলা আরব উপদ্বীপের একটি লুকানো রত্ন। আমরা ধীরে ধীরে এর গোপনীয়তা আবিষ্কার করছি। সৌদিয়া পরিচালিত স্কাই ট্রিপে মিউজিয়ামের দর্শনার্থীদের সঙ্গে আবিষ্কৃত তথ্য ভাগাভাগি করার জন্য তাঁরা উন্মুখ হয়ে আছি।

কমিশনের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা ফিলিপ জোনস বলেছেন, জাদুঘরটি আলউলায় প্রত্নতাত্ত্বিক কাজের গুরুত্ব তুলে ধরবে, যা এই সময়ে বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রত্নতাত্ত্বিক প্রোগ্রাম।

সৌদিয়া এয়ারলাইনসের করপোরেট কমিউনিকেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট খালেদ তাশ বলেছেন, জাদুঘরটি তাঁদের সঙ্গে কমিশনের সঙ্গে চলমান সহযোগিতারই একটি ধারাবাহিকতা। এর লক্ষ্য আলউলার সমৃদ্ধ ঐতিহ্য তুলে ধরা। এটিকে বিশ্বব্যাপী একটি পর্যটন গন্তব্য হিসেবে প্রচার করা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *