মেঘনায় অপহৃত ৫ জেলে উদ্ধার, অস্ত্র-গুলিসহ ৫ জলদস্যু গ্রেপ্তার

 মেঘনায় অপহৃত ৫ জেলে উদ্ধার, অস্ত্র-গুলিসহ ৫ জলদস্যু গ্রেপ্তার

লক্ষ্মীপুরে মেঘনা নদীতে মাছ ধরার সময় ৫ জেলেকে অপহরণ করে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণের দাবি করেছিল জলদস্যুরা। পরে শনিবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার চররমনী মোহন এলাকার মেঘনা নদীতে অভিযান চালিয়ে অপহৃত ৫ জেলেকে উদ্ধার করে মজুচৌধুরীহাট নৌ-পুলিশ। এসময় এলজি-গুলি ও কয়েকটি দেশীয় অস্ত্রসহ ৫ জলদস্যুকে আটক করে নৌ-পুলিশ। পরে রোববার সকালে মজুচৌধুরীরহাট নৌ-পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক মো. বেলাল হোসেন বাদী হয়ে সদর থানায় অপহরণ ও অস্ত্র আইনে পৃথক দুইটি মামলা দায়ের করেন। পরে ওই মামলায় আটককৃত ৫ জলদস্যুকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

মজুচৌধুরী ঘাট নৌ-পুলিশ সূত্রে জানায়, শুক্রবার রাত ১টার দিকে নোয়াখালীর হাতিয়ার ভাসানচর নদী এলাকা থেকে মাছ শিকার করছিলো জেলেরা। এসময় নোয়াখালীর হাতিয়ার জেলে নুরনবী, মো. মহিউদ্দিন, বাসু দেব, কোম্পানীগঞ্জের অলি আহমেদ ও লক্ষ্মীপুরের রামগতির আবদুল বারেককে অপহরণ করে নিয়ে যায় জলদস্যুরা। পরে চররমনীর একটি চরে একটি ইঞ্জিন চালিত ট্রলারে আটকে মারধর ও নির্যাতন করা হয়। পরে পরিবারের কাছে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে তারা।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার বিকেলে নদীতে অভিযান চালায় তারা।

এক পর্যায় সন্ধ্যায় অপহৃত ওই ৫ জেলেকে উদ্ধার করে পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয় ভোলার কালুপুর গ্রামের জলদস্যু মঞ্জুর আলম বেপারী, একই গ্রামের আবদুর রহিম, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চর রমনী মোহন এলাকার হযরত আলী, রামগতির আলেকজান্ডার গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম ও একই গ্রামের মো. হাসান। এসময় দেশীয় তৈরী এলজি, ৫ রাউন্ড কার্তুজ, ৩ টি ছেনি, নদীর ২টি চার্চ লাইট উদ্ধার করা হয়। জব্দ করা মুক্তিপনের কাজে ব্যবহৃত ইঞ্চিন চালিত ট্রলার।

মজুচৌধুরীরহাট নৌ-পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মো. কামাল উদ্দিন জানান, আটক ৫ জলদস্যুর বিরুদ্ধে অপহরণ ও অস্ত্র আইনে দুইটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওই দুই মামলায় তাদের ৫ জনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। এছাড়া এ ঘটনার সাথে আরো কারা জড়িত রয়েছে। সেটি তদন্ত করে তাদের গ্রেপ্তারের অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।

নৌ-পুলিশ চাঁদপুর অঞ্চলের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ কামরুজ্জামান বলেন, মুক্তিপনের জন্য মাঝিদের জিম্মি করা হয়েছিল। এসময় নদীতে অভিযান চালিয়ে ৫জনকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করা হয়। উদ্ধার করা হয় অপহৃত ৫ জেলেকে। এসময় তাদের কাছ থেকে অস্ত্র, গুলিসহ ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত মালামাল উদ্ধার করা হয়। নদীতে এ অভিযান অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন নৌ-পুলিশের এ কর্মকর্তা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *