রাস্তা দখলে প্রতিবাদ করায় নারীকে মারধর

 রাস্তা দখলে প্রতিবাদ করায় নারীকে মারধর

লালমনিরহাট প্রতিনিধি :

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার মকবুল হোসেন নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে রাস্তা দখল করে বসতবাড়ি নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। ওই রাস্তা দখলে বাঁধা দিলে কাকুলী বেগম নামে এক গৃহবধূকে মারধর করেন মকবুল হোসেনের দুই পুত্রসহ কয়েকজন। গত বৃহস্পতিবার উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নের পশ্চিম সারডুবী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বিচার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা।
অভিযোগে জানাগেছে, বড়খাতা ইউনিয়নের পশ্চিম সারডুবী রেল লাইন থেকে পশ্চিম পাশে আব্দারের বাড়ী পর্যন্ত ৪ শ মিটার একটি রের্কডভূক্ত রাস্তা রয়েছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, ওই রাস্তা দখল করে মৃত একামুদ্দিনের পুত্র মকবুল হোসেন বসত বাড়ি নির্মাণ করছেন। এ ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগও করেন স্থানীয় লোকজন। গত বৃহস্পতিবার রাস্তা দখলে বাঁধা দেয় প্রতিবেশী কাকুলী বেগম নামে এক গৃহবধূসহ স্থানীয়রা। এ সময় মকবুল হোসেনের দুই পুত্র রুবেল ও রশিদসহ কয়েকজন ওই কাকুলীকে মারধর করে।পরে তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাতীবান্ধা হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় কাকুলী বেগমের স্বামী সাইদুল ইসলাম বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামী করে হাতীবান্ধা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
তবে মারধর ও রাস্তা দখলের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন মকবুল হোসেনসহ তার দুই পুত্র রুবেল ও রশিদ। তাদের দাবী, তারা রাস্তা দখল করেনি। নিজস্ব জমিতেই বাড়ি নির্মাণ করছেন।
হাতীবান্ধা থানার ওসি এরশাদুল আলম বলেন, রাস্তা দখলের ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি স্থানীয় ভাবে মীমাংসার চেষ্টা চলছে। তা না হলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *