সরকার বিরোধী আন্দোলন ও শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে শিক্ষক স্থায়ীভাবে বরখাস্ত

 সরকার বিরোধী আন্দোলন ও শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে শিক্ষক স্থায়ীভাবে বরখাস্ত

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ

নওগাঁর আত্রাই উপজেলার পাইকড়া বড়াইকুড়ি কলেজের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মোঃ আকরাম আলী মৃধাকে প্রতিষ্ঠানের শৃঙ্খলা ভঙ্গ, সরকার বিরোধী আন্দোলন ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে স্থায়ীভাবে বরখাস্তের সুপারিশ করেছে আপিল এন্ড আরবিট্রেশন বোর্ড সভা।
প্রতিষ্ঠান ও মামলার রায় সূত্রে জানা যায়, সমাজ বিজ্ঞান বিষয়ের প্রভাষক আকরাম আলী মৃধা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হওয়ার পর বেতন ভাতার জন্য ব্যাংকে হিসাব নম্বর খোলার সময় অধ্যক্ষের স্বাক্ষর জাল করার দায়ে তাকে সাময়িক বরখাস্ত হন। এরপর আবারও প্রতিষ্ঠানের শৃঙ্খলা ভঙ্গ, সরকার বিরোধী আন্দোলন ও উস্কানিমূলক বক্তব্যের জন্য গত ৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ইং তারিখে তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ করা হয় । তারই প্রেক্ষিতে গত ২৩ মার্চ ২০১৯ খ্রিস্টাব্দে গভর্নিং বডির সভায় তাকে সাময়িক ভাবে বরখাস্ত করা হয়। তখন বরখাস্তকৃত শিক্ষক আদালতে তার বেতন ভাতার জন্য মামলা করেন।
আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষকে তার বরখাস্ত করার কারণ জানতে চাইলে কর্তৃপক্ষ প্রমাণাদি দাখিল করেন। সে মামলার শুনানিতে শিক্ষক আকরাম আলী মৃধা স্বীকার করেন তিনি সরকার বিরোধী আন্দোলন ও উস্কানিমূলক বক্তব্য প্রদান করেছেন। পরবর্তীতে তাকে গত ১৫ মে ২০১৯ খ্রিস্টাব্দে চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করার অনুমতির জন্য রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড বরাবর আবেদন করেন প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ।
সেই আবেদন আমলে নিয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড রাজশাহী গত ৪ ডিসেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দে অনুষ্ঠিত ১৩/২০২০ তম আপিল এন্ড আরবিট্রেশন কমিটি তাকে বরখাস্তের সুপারিশ করেন। এবিষয়ে বুধবার ১ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখে প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ বরাবর পত্র প্রেরণ করে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড।
পত্রের সিদ্ধান্তে বলা হয়েছে, প্রভাষক মোঃ আকরাম আলী মৃধাকে গভর্নিং বডি কর্তৃক যথাযথ পদ্ধতি অনুসরণ করে সাময়িক বরখাস্ত করায় এবং তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগসমূহ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে স্থায়ীভাবে বরখাস্তের জন্য আবেদনটি মঞ্জুর করা হলো। বিষয়টি অনুমোদনের জন্য পরবর্তী বোর্ড সভায় উপস্থাপনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো।
উল্লেখ্য, আপিল এন্ড আরবিট্রেশন কমিটি কর্তৃক গৃহীত উল্লেখিত সুপারিশ গত ২৮/০৭/ ২০২১ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত ২৪৭ তম বোর্ড সভায় আলোচ্য সূচি ০৮ (ঘ)(২)(২) মোতাবেক অনুমদিত হয়েছে। বিধায় বোর্ড সভায় অনুমোদিত সুপারিশ বাস্তবায়নে জন্য আপনাকে অনুরোধ করা হলো।
বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মোঃ গোলাম কিবরিয়া বলেন, বরখাস্তকৃত প্রভাষক মোঃ আকরাম আলী মৃধা চাকরির শুরু থেকেই চাকরিবিধির তোয়াক্কা না করে নিজের ইচ্ছেমত চলেন । বিভিন্ন সময়ে আমার স্বাক্ষর জাল করেছেন। তার প্রেক্ষিতে গভর্নিং বডির সিদ্ধান্তে তাকে শোকজ করা হয়েছিল এবং সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। সর্বশেষে তাকে স্থায়ী ভাবে বরখাস্তের আবেদন করা হলে আপিল এন্ড আরবিট্রেশন বোর্ড সভা স্থায়ীভাবে বরখাস্তের সুপারিশ করে।

এব্যাপারে কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি বরুণ কুমার সরকার বলেন, বোর্ডের সিদ্ধান্তের চিঠি আমরা হাতে পেয়েছি। সেই চিঠির আলোকে পরবর্তীতে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
এবিষয়ে জানতে চাইলে প্রভাষক মোঃ আকরাম আলী মৃধা বলেন, আমাকে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হয়নি। সাময়িকভাবে বরখাস্ত করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এবিষয়ে আমার হাইকোর্টে মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *