সৌদিতে বাধ্যতামূলক হচ্ছে টিকার বুস্টার ডোজ

 সৌদিতে বাধ্যতামূলক হচ্ছে টিকার বুস্টার ডোজ

চোখ রাঙাচ্ছে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’। ইতিমধ্যে ভাইরাসটি কমপক্ষে ৩৮টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। তাই নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট ঠেকাতে টিকার বুস্টার ডোজ বাধ্যতামূলক করার কথা জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব।

শুক্রবার (০৩ ডিসেম্বর) সৌদি আরবের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক টুইট বার্তায় জানিয়েছে, পূর্ণ ডোজ টিকা নেওয়ার আট মাস পর টিকার বুস্টার ডোজ বাধ্যতামূলক করা হবে। আর এটি কার্যকর হবে ২০২২ সালের ১ ফেব্রুয়ারি থেকে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতভিত্তিক গালফ নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সৌদি আরবের সকল নাগরিক এবং বাসিন্দাদের অবশ্যই তাওয়াক্কলনা অ্যাপে তাদের ‘ইমিউন’ স্ট্যাটাস সুরক্ষিত করতে ভ্যাকসিনের বুস্টার ডোজ নিতে হবে।

সৌদি আরবের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ১৮ বছরের বেশি বয়সীদের বুস্টার ডোজ গ্রহণ করতে হবে। করোনার টিকার দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণের পর যদি আট মাস পেরিয়ে যায় তাহলে তাদের জন্য বুস্টার ডোজ গ্রহণ বাধ্যতামূলক। ২০২২ সালের ১ ফেব্রুয়ারি থেকে বুস্টার ডোজ ছাড়া আর তাওয়াক্কালনা অ্যাপে ইমিউন শো করবে না।

তাওক্কালনা অ্যাপে ইমিউন শো না করলে নিম্নোক্ত ক্ষেত্রসমূহে প্রবেশাধিকার সীমিত থাকবে-

>> যে কোনও আর্থিক, ব্যবসায়িক, সাংস্কৃতিক, ক্রীড়া বা পর্যটন কার্যকলাপে প্রবেশের ক্ষেত্রে।

>> যে কোনো প্রকার সাংস্কৃতিক, বিনোদনমূলক, সামাজিক, শিক্ষামূলক অনুষ্ঠানে প্রবেশের ক্ষেত্রে।

>> যে কোনো সরকারি বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে প্রবেশের ক্ষেত্রে।

>> প্লেনে এবং পাবলিক ট্রান্সপোর্টে ভ্রমণের ক্ষেত্রে।

এখন পর্যন্ত তাওয়াক্কালনা এপে ইমিউন শো করার জন্য শর্ত ছিল দুই ডোজ টিকাগ্রহণ সম্পন্ন করা। এখন এই নির্দেশনার ফলে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে শর্ত হবে তিন ডোজ সম্পন্ন করা।

এদিকে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্য স্বামীনাথন বলেছেন, করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ অত্যন্ত সংক্রমণযোগ্য। তবে এটি নিয়ে মানুষকে আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য বলেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, ওমিক্রন গত ২৪ নভেম্বর প্রথম দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হয়। তারপর অন্যান্য দেশে শনাক্ত হয়েছে নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট। করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন নিয়ে এরইমধ্যে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। উদ্বিগ্ন বিজ্ঞানীরাও। তারা বলছেন, করোনাভাইরাস ব্যাপকভাবে রূপান্তরিত হয়ে নতুন এই রূপ নিয়েছে। এটি মারাত্মক হুমকি তৈরি করতে পারে বলে সতর্ক করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *