২ দফা সময় নিয়েও হাজির হননি ফারহানা বাতেন, তদন্ত প্রতিবেদন জমা

 ২ দফা সময় নিয়েও হাজির হননি ফারহানা বাতেন, তদন্ত প্রতিবেদন জমা

সিরাজগঞ্জের রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ ছাত্রের চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনের মতামত ছাড়াই তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে তদন্ত কমিটি।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল পর্যন্ত অপেক্ষা করার পরও ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন তদন্ত কমিটির সামনে হাজির না হওয়ায় শেষপর্যন্ত তার মতামত ছাড়াই তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে তদন্ত কমিটি।

আজ শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের জরুরি সভায় তদন্ত প্রতিবেদন উপস্থাপন করে আলোচনা সাপেক্ষে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নেবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

গত ২৬ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতি ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ স্টাডিজ বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন বিভাগের ১৩-১৪ জন শিক্ষার্থীর মাথার চুল কেটে দেন। এ ঘটনায় ২৭ সেপ্টেম্বর রাতে বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী নাজমুল হোসেন তুহিন (২৫) ছাত্রাবাসে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। এতে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা বর্জন করে আন্দোলনে নামেন।

এ ঘটনায় রবীন্দ্র স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান লায়লা ফেরদৌস হিমেলকে প্রধান করে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় তদন্ত কমিটিকে ৭ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়।

তদন্ত কমিটির প্রধান লায়লা ফেরদৌস হিমেল আমাদের বার্তাকে বলেন, ‘তদন্ত কমিটির কাছে আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য অভিযুক্ত শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনকে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়ে নোটিশ দেওয়া হলেও নির্ধারিত ৩ অক্টোবরের মধ্যে তিনি হাজির হননি। এসময় তিনি শারীরিক ও মানসিকভাবে অসুস্থ আছেন দাবি করে ২ সপ্তাহের সময় চান।’ 

‘মানবিক কারণে আবারও তাকে সময় দেওয়া হয় কিন্তু নির্ধারিত ৭ অক্টোবরের মধ্যেও তিনি হাজির হননি বা কোনো বক্তব্য উপস্থাপন করেননি। ওই দিন রাতে একটি ই-মেইলে তিনি নিজেকে অসুস্থ দাবি করে আবারও ২ সপ্তাহের সময় চান। শেষ পর্যন্ত ২১ অক্টোবর পর্যন্ত তাকে সময় দেওয়া হয়’, যোগ করেন তিনি।

লায়লা ফেরদৌস হিমেল আরও বলেন, ‘গতকাল বিকাল ৩টা পর্যন্ত অপেক্ষা করার পরও ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন তদন্ত কমিটির সামনে আসেননি। অবশেষে তদন্ত কমিটি বাধ্য হয়েই তার বক্তব্য ছাড়াই তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের দায়িত্বে থাকা ট্রেজারার আব্দুল লতিফ আমাদের বার্তাকে বলেন, ‘আজ বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের একটি জরুরি সভা আহ্বান করা হয়েছে। সিন্ডিকেট সভায় অভিযুক্ত শিক্ষক ফারহানা বাতেনের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটির দেওয়া প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *