জ্বালানি তেলের এই ধাক্কায় দরিদ্র হবে বহু মানুষ

 জ্বালানি তেলের এই ধাক্কায় দরিদ্র হবে বহু মানুষ

জ্বালানি তেলের বাড়তি ব্যয় সমন্বয় করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে স্বল্প আয়ের মানুষকে। করোনা মহামারির ধাক্কা সামলে ওঠার এই সময়ে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধিতে নতুন করে গরিব মানুষের সংখ্যা বাড়বে। পরিকল্পনামন্ত্রী মনে করেন, এমন অবস্থায় সমন্বয় করে চলা ছাড়া উপায় নেই।

হঠাৎ করে এক লাফে দুই ধরনের জ্বালানি তেলের দাম লিটারে বেড়েছে ১৫ টাকা। এতে সংকটাপন্ন অবস্থায় চলে গেছে নিম্নবিত্ত শ্রেণির বহু মানুষ। রিক্সা চালিয়ে পরিবারের ছয় সদস্যের খাবার যোগানো মাইদুল ইসলাম এমম শ্রেণিরই প্রতিনিধি। জানালেন, করোনার কারণে এমনিতেই কমেছে আয়, তার ওপর জ্বালানি তেলের দাম বাড়ায় চোখেমুখে অন্ধকার অবস্থা তার।

শুধু জ্বালানিই নয়, এর সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে সবধরনের পণ্য এবং সেবারও ব্যয়। করোনার এই সংকটের মধ্যে দিন এনে দিন খাওয়া মানুষদের সামনে আতঙ্কের নাম জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি। এর ফলে ওলটপালট হয়ে গেছে সবদিক। বেড়েছে বাস, ট্রাক, নৌপথের যাত্রা ব্যয়। পাশাপাশি বেড়েছে কৃষি ও বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যয়। আর ব্যয় বৃদ্ধির শিকার সাধারণ মানুষ। এতে নতুন করে জীবন ধারণে চাপ তৈরি হবে বলে মনে করছেন অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান। তিনি বলছেন, এই ধাক্কায় দরিদ্র হবে বহু মানুষ।

অন্যদিকে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানও মনে করেন, জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি এই সময়ে স্বস্তির বার্তা দেবে না। তাই ভোগ ব্যয়ে লাগাম টানানর পরামর্শ তার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *