৯ মাস ধরে ভাতা না পেয়ে সমাজসেবা অফিসে ভাতাভোগীদের অবস্থান

 ৯ মাস ধরে ভাতা না পেয়ে সমাজসেবা অফিসে ভাতাভোগীদের অবস্থান

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি:

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে বয়স্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতা ভোগীরা ভাতার টাকা না পাওয়ায় উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়েছেন।
বৃহস্পতিবার(৯সেপ্টেম্বর) বেলা ১১ টা পর্যন্ত তাদের অবস্থানের ৪৮ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও কর্তৃপক্ষ কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি।
ভাতাভোগীরা জানান, অক্টোবর ২০২০ থেকে মোবাইল ব্যাংকের মাধ্যমে টাকা পাবার জন্য ডাটাবেজ তৈরি করা হলেও তাদের ভাতা আজ পর্যন্ত মোবাইল ব্যাংকে জমা হয়নি।
অভিযোগ রয়েছে, জনপ্রতিনিধি, ও সমাজসেবা কার্যালয়ের কর্মকর্তা ও মাঠকর্মীরা ভূয়া মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে এ সকল ভাতাভোগীদের টাকা তুলে নিয়েছে। উপজেলার ১৪ ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে একই কায়দায় প্রায় ৬ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ায়াওে অভিযোগ উঠেছে।

এদিকে অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নেয়া পিয়ারপুর ইউপির ৩ নং ওয়ার্ডের ভাতাভোগী ইয়ার আলী জানান, এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট জনপ্রতিনিধি ও মাঠকর্মী কাছে খোঁজ নিতে গেলে তারা জানিয়েছেন মোবাইল নাম্বার ভুল হয়েছে। এরপর থেকে আপনারা টাকা পাবেন। কিন্তু ভাতাভোগীরা গত ৮/৯ মাস ভাতা না পেয়ে বিভিন্ন দপ্তরে জানিয়েও কোন সুরাহা পাননি।তাই বাধ্য হয়ে তারা সমাজসেবা কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেছেন।
তিনি বলেন, আমাদের প্রাপ্য ভাতা না পাওয়া পর্যন্ত আমরা এখানেই অবস্থান করব।
পিয়ারপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ লালু বলেন, সমাজসেবা অফিসের মাঠকর্মীরা এ কাজে জড়িত। যদি কোন ইউপি মেম্বার জড়িত থাকেন তাহলে আমি তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবো।
হোগলবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম চৌধুরী, আড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান সাইদ আনসারি, আদাবাড়িয়া মকবুল হোসেন, প্রাগপুর ইউপি চেয়ারম্যান আশরাফুজ্জামান মুকুল একইভাবে সমাজসেবা কর্মকর্তা ও অফিসের মাঠকর্মীদের অভিযুক্ত করেছেন।
উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা আতাউর রহমানের কাছে জানতে চাইলে সপ্তাহ খানেকের মধ্যে বিষয়টি নিস্পত্তি হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তার বলেন, এ বিষয়টি আমার আওতায় নয়।
সংসদ সদস্য সরওয়ার জাহান বাদশাহ জানান, এ বিষয়ে গত ২ সেপ্টেম্বর সংশ্লিষ্ট সকল কর্মকর্তা ও জন প্রতিনিধিদের সাথে কয়েক ঘন্টা বৈঠক করেছি। এ কর্মকান্ডে যারা জড়িত আছে তাদের অবশ্যই শাস্তির আওতায় আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *