দৌলতপুরে আশ্রয়ণের ঘরে ৩০ পরিবারের মানবেতর জীবন

 দৌলতপুরে আশ্রয়ণের ঘরে ৩০ পরিবারের মানবেতর জীবন

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধিঃ

দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সোনাইকুন্ডি আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরগুলো বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। ভগ্নপ্রায় ঘরে অতিকষ্টে বসবাস করছে ৩০টি অসহায় দরিদ্র পরিবার।
উপজেলার হোগলবাড়ীয়া ইউনিয়নের সোনাইকুন্ডি মৌজায় ৩ একর ৫১ শতক সরকারি জমিতে ১৯৯১ সালে ৩টি লম্বা ১০ কক্ষ বিশিষ্ট টিনসেড ঘর, ৩টি পায়খানা ও ৩টি টিউবওয়েল বসানো হয়। প্রতি ঘরে ১০ জন করে মোট ৩০ জন ভূমিহীন ও দরিদ্র মানুষের বসবাসের ব্যবস্থা করে সে সময় বরাদ্দ দেওয়া হয়। পাশাপাশি তাদের স্বাবলম্বী করার জন্য উপজেলা সমবায় অফিস থেকে ৩০ জনকে ঋন ও মাছ চাষের জন্য একটি বড় পুকুর দেওয়া হয়।
কিন্তু ঘরগুলো বরাদ্দের দুই যুগ হতে চললেও সংস্কারের অভাবে তা বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। ঘরের চালের টিন ছিদ্র হওয়ায় বৃষ্টির পানি পড়ছে। টিউবওয়েল ও পায়খানাগুলো ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এছাড়াও আশ্রয়ণ প্রকল্পের কিছু জমি প্রভাবশালীদের দখলে চলে গেছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। আশ্রয়ণ প্রকল্পে বসবাসরত লোকজন জমি দখলদারদের বিরুদ্ধে কিছু বলারও সাহস পাচেআছনা। সবদিক থেকে আশ্রয়ণ প্রকল্পে বসবাসরত অসহায় মানুষগুলো এখন মানবেতর জীবন যাপন করছে।
এব্যাপারে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরগুলো সংস্কারের আশ্বাস দিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *